অ্যামব্রিসের শতরানে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ফাইনালে


অথর
ক্রিকেট ডেক্স   ক্রীড়া অঙ্গন
প্রকাশিত :১২ মে ২০১৯, ১১:৪১ পূর্বাহ্ণ
অ্যামব্রিসের শতরানে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ফাইনালে

এন্ডি ব্যালবির্নির সেঞ্চুরি ম্লান করে ১৪৮ রানের নান্দনিক ইনিংস খেলে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ফাইনাল নিশ্চিত করলেন ওপেনার সুনীল অ্যামব্রিস। আজ টুর্নামেন্টের চতুর্থ ও নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে ক্যারিবীয়রা ৫ উইকেটে হারায় আইরিশদের। ব্যালবির্নির ১২৪ বলে ১৩৫ রানের সুবাদে ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে ৩২৭ রানের সংগ্রহ পায় স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড। জবাবে অ্যামব্রিসের ব্যাটিং নৈপুণ্যে ১৩ বল বাকী রেখে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ডাবলিনে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং বেছে নেয় আয়ারল্যান্ড। দলীয় ১৯ রানেই প্রথম উইকেট হারায় তারা। ৫ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসার শেলডন কটরেলের শিকার হন ওপেনার জেমস ম্যাককোলাম। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে বড় জুটি গড়ার চেষ্টা করেন আরেক

ওপেনার পল স্টার্লিং ও তিন নম্বরে নামা ব্যালবির্নি। নিজেদের চেষ্টার সাফল্য পেয়েছেন তারা। ১৪৬ রানের জুটি গড়েন স্ট্রার্লিং-ব্যালবির্নি। ৮টি চার ও ২টি ছক্কায় ৯৮ বলে ৭৭ রান করে গাব্রিয়েলের বলে থামেন স্টার্লিং।
স্টার্লিং-এর বিদায়ে উইকেটে গিয়ে ৩ রানের বেশি করতে পারেননি অধিনায়ক উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড। স্টার্লিং-কে আউট করা শানন গ্যাব্রিয়েল শিকার করেন পোর্টারফিল্ডকেও। এর মাঝে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের চতুর্থ সেঞ্চুরির স্বাদ নেন ব্যালবির্নি। তিন অংকে পা দিয়েও নিজের ইনিংসটি বড় করেছেন ব্যালবির্নি। তার সাথে ঐ সময় ক্রিজে ছিলেন কেভিন ও’ব্রায়েন। ব্যালবির্নি-ও’ব্রায়েন জুটির আক্রমনাত্মক ব্যাটিংয়ের সুবাদে ৬৭ বলে ৮৪ রান পায় দল।

শেষ পর্যন্ত ১৩৫ রানে বিদায় নেন বলব্রিনি। ১২৪ বলের ইনিংসে ১১টি চার

ও ৪টি ছক্কা হাকিয়ে কার্টারের শিকার হন তিনি। মারমুখী মেজাজে ব্যাট চালিয়ে হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নিয়েছেন ও’ব্রায়েনও। ৩টি করে চার-ছক্কায় ৪০ বলে ৬৩ রান করেন ও’ব্রায়েন। শেষদিকে, মার্ক আদাইয়ের ১৩ বলে ২টি চার ও ১টি ছক্কায় অপরাজিত ২৫ রানের সুবাদে ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে ৩২৭ রানের বড় সংগ্রহ পায় আয়ারল্যান্ড। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এটিই সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ আইরিশদের। ক্যারিবীয় পেসার গ্যাব্রিয়েল ৪৭ রানে ২ উইকেট নেন। ৩২৮ রানের বড় টার্গেটে ৭৬ বলে ৮৪ রান যোগ করেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই ওপেনার শাই হোপ ও সুনীল অ্যামব্রিস। আগের দু’ম্যাচেই সেঞ্চুরি করা হোপ আজ থামেন ৩০ রানে। হোপের ফিরে যাবার পর ক্রিজে এসে বড়

ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হন ড্যারেন ব্রাভোও। ১৭ রানে শেষ হয় তার ইনিংস। তবে তৃতীয় উইকেটে ১২৮ রানের বড় জুটি গড়েন অ্যামব্রিস ও রোস্টন চেজ। এরমধ্যে ৪৬ রান অবদান ছিলো চেজের। চেজের বিদায়ের আগেই ওয়ানডে ক্যারিয়ারের চতুর্থ ম্যাচে প্রথম সেঞ্চুরির স্বাদ নেন অ্যামব্রিস।

৮৯ বলে সেঞ্চুরির পর মারমুখী মেজাজ অব্যাহত রেখে দলের জয়ের পথ সহজ রাখেন আ্যামব্রিস। তবে ১২৬ বলে ১৯টি চার ও ১টি ছক্কা হাকিয়ে ব্যক্তিগত ১৪৮ রানে বয়েড র‌্যানকিনের বলে আউট হন তিনি। ৪০তম ওভারে দলীয় ২৫২ রানে অ্যামব্রিসের বিদায়ের পর দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে গেছেন জনাথন কার্টার ও অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। কার্টার অপরাজিত ৪৩ ও হোল্ডার ৩৬ রান করেন।

ম্যাচ সেরা হয়েছেন অ্যামব্রিস। আগামী ১৩ মে বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।