‘এখানে নির্দ্বিধায় যে কেউ যে কাউকে ধর্ষণ করতে পারে’


শবনম সুলতানা পপি
অথর
ডোনেট বাংলাদেশ নিউজ ডেক্স   সোশ্যাল মিডিয়া
প্রকাশিত :৯ জুলাই ২০১৯, ৮:৩৩ পূর্বাহ্ণ
‘এখানে নির্দ্বিধায় যে কেউ যে কাউকে ধর্ষণ করতে পারে’

‘ধর্ষণ’ শব্দটা কানে বেজে উঠলে শিউরে উঠে শরীর। আতকে উঠি আচমকায়। অবলীলায় সহে যায় পাশবিক নির্যাতন। দু’নয়ন বেয়ে ঝরে লোনা পানি। আর্তচিৎকার যেন যায় না হায়েনাদের কানে। বিচারের আশায় হাসপাতালের বিছানায় চলে যায় কত না সায়মা। দুনিয়ার মায়া বোঝার আগেই সায়মার মত প্রতিদিন ঝরছে কতনা নিঃস্পাপ ফুলের মত জীবন। ‘পুরুষদেরও ধর্ষণবিরোধী আওয়াজ তোলা উচিত’ শুক্রবার (৫ জুলাই) রাজধানীর ওয়ারীতে মাত্র ৭ বছরের শিশু সামিয়া আফরিন সায়মা। ধর্ষণের শিকার হন। শুধু ধর্ষণই নয় হত্যা করা হয় তাকে। এটি কিছুতেই মেনে নিতে পারছেনা সমাজ। তেমনই হৃদয়ে আঘাত করেছে একজন নারী পুলিশ কর্মকর্তার। নিজের সাথে ঘটেছে এমন চিন্তা বোধ থেকেই ‘ধর্ষণ’ নামক ঘৃণিত

শব্দ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কিছু কথা তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন পুলিশের উপ-পরিদর্শক শবনম সুলতানা পপি। লেখাটি বাংলাদেশ জার্নালের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো:

‘ধর্ষণ শব্দটা কানে যেতেই আমি একবার ধর্ষিত হই। ধর্ষণ শব্দটা চোখে ভাসতেই আমি পুনরায় ধর্ষিত হই। আমি জেগে ধর্ষিত হই, আমি ঘুমে ধর্ষিত হই। আমি, আমার অনাগত সন্তান,আমার মা,আমার বোন, আমার মেয়ে, আমার বৃদ্ধ দিদা কিংবা আমার নানু তারাও আমার চোখের সামনে বারবার ধর্ষিত হয়। আমার দুধের শিশুও ধর্ষিত হয় অবলীলায়। কখনও ধর্ষণ করে হত্যা আর কখনও হত্যা করে ধর্ষণ। আমি নির্বাক তাকিয়ে রই আর সহ্য করি। আমি মন্দিরে ধর্ষিত হই, আমি মসজিদে ধর্ষিত হই, আমি

গীর্জায় ধর্ষিত হই, আমি প্যাগোটায় ধর্ষিত হয়। কোথায় আমি নিরাপদ? আমি বাসা-বাড়ি, রাস্তাঘাট, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, হাসপাতাল, পরিবহন, অফিস, আদালত কিংবা অন্য যে কোন স্থানে কোনো কারণ ছাড়াই বারংবার ধর্ষিত হই। চাচা-মামা, ফুফা-খালু, ভাই-বন্ধু, আত্মীয়-স্বজন,পাড়া- প্রতিবেশী, খুব চেনা মুখ অথবা অচেনা কেউ, কারো কাছে থেকেই আমার রেহাই মেলে না। শিক্ষক, মাওলানা, ডাক্তার, পুলিশ , বিচারক,উকিল মোক্তার, আমলা, গুণীজন, সূধীজন সব যেন সুযোগ সন্ধানী ধর্ষক। কে দেবে আমার নিরাপত্তা? সমাজের উঁচু-নিচু, ধর্ম, বর্ণ, গোত্র, আইন, বিচার-আচার সব কিছুই আমাকে নরকের কিটের মতো খুবলে খুবলে খায়। এই ভূ-খন্ডে অথবা ধরণীর যে কোন ভূ-খন্ডের ধর্ষণের ঘটনায় আমি প্রতিবারই ধর্ষিত হই। আমার গর্ভে জন্ম

নেয় ধর্ষকের বীজে সৃষ্ট আরও একটা নতুন ধর্ষক। এই সমাজ,এই দেশ, এই পৃথিবী আর কোনদিনও ধর্ষক মুক্ত হতে পারবে না আর আগামী প্রজম্ম ও ধর্ষকের হাত থেকে শেষ রক্ষা পাবে না। আজ আমি একজন ধর্ষিতা হিসেবে বিশ্বাস করি, আমার এই স্বাধীন জম্মভূমি এখন ধর্ষকদের চারণভূমিতে পরিণত হয়েছে। এই দেশ এখন ধর্ষকদের নিরাপদ আবাসন। এখানে নির্দ্বিধায় যে কেউ যে কাউকে ধর্ষণ করতে পারে।