নান্দাইলে ২০ লাখ টাকায় বাচঁতে পারে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মৌসুমীর জীবন


অথর
মানবতা নিউজ ডেক্স   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:০৫ পূর্বাহ্ণ | পঠিত : 86 বার
নান্দাইলে ২০ লাখ টাকায় বাচঁতে পারে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মৌসুমীর জীবন

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার নাগপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শফিকুল ইসলাম শফিকের স্ত্রী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মাহমুদা আক্তার মৌসুমী (২৫) দূরারোগ্য কর্ডমা ক্যান্সারে ভোগছে। সে ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্র বিজ্ঞানের অনার্স ফাইনাল বর্ষের ছাত্রী। মৌসুমীর উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে দেশের বাইরে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রয়োজন ২০ লাখ টাকা। যা তাঁর স্বামী ও পরিবারের পক্ষে ব্যবস্থা করা অসম্ভব। স্ত্রীকে বাচাঁতে পারলেই বেচেঁ যাবে মৌসুমীর পরিবার। মৌসুমীর ছোট ছোট দুই সন্তান রয়েছে। মৌসুমীকে বাচাঁতে সরকার সহ সমাজের বিত্তবানদের কাছে সাহায্য চেয়েছেন স্বামী শফিকুল ইসলাম। এ নিয়ে নান্দাইলের রাজনৈতিক, প্রাথমিক শিক্ষক-শিক্ষিকা, সামাজিক সংগঠন ও সমাজের বিত্তবান ব্যাক্তিদের পক্ষ থেকে মৌসুমী আক্তারের জন্য বিভিন্ন

তহবিল গঠন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে মিসেস জাহানারা খান ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে ৫ হাজার টাকা ও সংগঠনের সাধারন সম্পাদক রবি আকন্দের মাধ্যমে সিঙ্গাপুর প্রবাসী নান্দাইল উপজেলার রায়পাশা গ্রামের মো. রাসেল মিয়া ৫ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করেন। তবে এর পূর্বে ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের সদস্য ও নান্দাইল উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক বাহারের সভাপতিত্বে ৪২ হাজার ৬শত টাকা অনুদান প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া নান্দাইল উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ জানান মৌসুমীর চিকিৎসার জন্য প্রায় ৩ লাখ টাকার মতো অনুদান দিবেন বলে চিকিৎসা তহবিলের টাকা সংগ্রহ করা হচ্ছে। তবু মৌসুমীর উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজেন বিদেশ নিতে ২০ লাখ টাকা পূরন করতেই হবে। তাই

সমাজের বিত্তবানদের নিকট সহযোগীতা চান স্বামী শফিকুল ইসলাম। উক্ত শিক্ষকের স্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী মৌসুমী আক্তারকে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা : রূপালী ব্যাংক, ময়মনসিংহ নান্দাইল শাখা, হিসাব নম্বর-৫৬৯৪০১১০০৫৭২৫। বিকাশ নম্বর-০১৭২৯৯৫৭৫৩২ (পার্সোনাল)।