বিচারাধীন মামলার সংবাদ প্রচার না করার বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া বিজ্ঞপ্তি নিয়ে সৃষ্ট বিতর্কের দ্রুত ব্যাখ্যা আসছে


অথর
ডোনেট বাংলাদেশ ডেক্স   আইন ও আদালত
প্রকাশিত :২১ মে ২০১৯, ১১:৪১ পূর্বাহ্ণ | পঠিত : 125 বার
বিচারাধীন মামলার সংবাদ প্রচার না করার বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া বিজ্ঞপ্তি নিয়ে সৃষ্ট বিতর্কের দ্রুত ব্যাখ্যা আসছে

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ‘বিচারাধীন মামলার সংবাদ প্রচার না করার বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া বিজ্ঞপ্তি নিয়ে সৃষ্ট বিতর্কের দ্রুত ব্যাখ্যা আসছে । আমার মনে হয় আপনারা অতিদ্রুত এ বিষয়ে একটি ব্যাখ্যা পাবেন।’ সোমবার দুপুরে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনসহ আপিল বিভাগের বিচারপতিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান আইনমন্ত্রী। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘আমি বিচারাধীন বিষয়ে সংবাদ প্রকাশের বিষয়ে প্রধান বিচারপতির সঙ্গে কথা বলেছি। আলাপ চলছে, বিজ্ঞপ্তি নিয়ে যদিও কিছুটা ভুল বোঝাবুঝি হয়ে থাকে সে ব্যাপারটা তাদের (আপিল বিভাগের বিচারপতিদের) বিবেচনায় আছে। আমার মনে হয় আপনারা অতিদ্রুত এ বিষয়ে একটি ব্যাখ্যা পাবেন।’

গত বৃহস্পতিবার হাইকোর্ট বিভাগের

রেজিস্ট্রার মো. গোলাম রব্বানী স্বাক্ষরিত এক নির্দেশনায় বলা হয়, ‘ইদানিং কোনো কোনো ইলেকট্রনিক মিডিয়া তাদের চ্যানেলে এবং কোনো কোনো প্রিন্ট মিডিয়া তাদের পত্রিকায় বিচারাধীন মামলা সংক্রান্ত বিষয়ে সংবাদ পরিবেশন/স্ক্রল করছে, যা একেবারেই অনভিপ্রেত। এমতাবস্থায়, বিচারাধীন কোনো বিষয়ে সংবাদ পরিবেশন/স্ক্রল করা হতে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।’

ষোড়শ সংশোধনী না থাকায় এ মুহূর্তে বিচারপতিদের অপসারণের বিষয়ে শূন্যতা রয়েছে বলে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মন্তব্যের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘কোনো সমস্যা যদি হয় তাহলে রাষ্ট্রপতি হলেন রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পদের অধিকারী। তার কাছে নিশ্চয় কোনো না কোনো নালিশ পাঠানো যেতে পারে এবং তার যথেষ্ট ক্ষমতা আছে। তিনি সংবিধানের মধ্য থেকে বিবেচনা

করতে পারেন। সেটা কার বিবেচ্য বিষয় সেটা আমাকে জিজ্ঞাসা করা হলে তাকে আমি বলব। ষোড়শ সংশোধনীর বিষয়ে যে শূন্যতা সে শূন্যতার কারণেই কোনো কিছুই রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানো যাবে না-এটা ঠিক না।’