বিশেষ মুহূর্তে সঙ্গীকে যে কথাগুলো বলবেন না


অথর
পুরুষ-কথন নিউজ ডেক্স   জীবনধারা
প্রকাশিত :৯ অক্টোবর ২০১৯, ২:০৫ অপরাহ্ণ
বিশেষ মুহূর্তে সঙ্গীকে যে কথাগুলো বলবেন না

মুহূর্তে সঙ্গীকে যে কথাগুলো বলবেন না
পুরুষ তার সঙ্গীর কাছে সবসময় নিজেকে সুপারম্যান মনে করে। এমনকি বিশেষ মুহূর্তেও নিজেকে সেভাবেই ভাবতে পছন্দ করে।

অথচ, সেই মুহূর্তে সঙ্গী যদি তাকে ছোট করে কথা বলে, তাহলে মনটাই ভেঙে যায় পুরুষের। সেজন্য বিশেষ মুহূর্তে পুরুষ সঙ্গীকে কিছু কথা না বলার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। আসুন জেনে নেওয়া যাক সে ব্যাপারে।

আমি কারো সঙ্গী ছিলাম

কোনো পুরুষই চাইবে না যে, তার নারী সঙ্গী কারো সাবেক হোক। এমনকি আপনি যদি অতীতে কারো সঙ্গে সম্পর্ক গড়েও থাকেন, তার পরেও আপনার পুরুষ সঙ্গীকে বিশেষ মুহূর্তে এ ব্যাপারে কিছু বলবেন না।

তুমি কি মনে করো আমি মোটা?

বিশেষ মুহূর্তে পুরুষ সঙ্গীর কাছে এ

ব্যাপারে জানতে চাইবেন না। এতে করে সঙ্গী আপনার প্রতি আকর্ষণ হারিয়ে ফেলতে পারে। তার চেয়ে নিজেকে আকর্ষণীয় হিসেবে উপস্থাপন করতে পারেন। নিজেও ইতিবাচক চিন্তা করতে পারেন।

এতে করে যৌন জীবন সুখের হবে। তবে অন্য সময়ে শরীর নিয়ে আলোচনা করতে পারেন।

বিশেষ খেলনার ব্যাপারে

পুরুষ সঙ্গীকে কখনো খেলনা বা টয় ব্যবহার করেছেন বলে জানাবেন না। সচরাচর এটা শুনে সঙ্গী আপনার প্রতি বিরক্ত হওয়ার কথা।

আমি বিরক্ত

হয়তো সেই সময় নানা কারণে আপনি বিশেষ মুহূর্তে যেতে চাচ্ছেন না। তাই বলে সঙ্গীকে বলতে যাবেন না যে, তার প্রস্তাবে আপনি বিরক্ত হচ্ছেন। এতে করে বিষয়টা আপনার সঙ্গী নেতিবাচকভাবে ধরে নিতে পারে। তার মনে হতে পারে, দাম্পত্য জীবনে আপনি আগ্রহ

হারিয়ে ফেলেছেন।

আগের সঙ্গী সম্পর্কে তুলনা দেবেন না

কখনোই আগের সঙ্গীর গুণের কথা উল্লেখ করবেন না। এতে করে আপনার পুরুষ সঙ্গী মুষড়ে যেতে পারে। এমনকি কোনো পুরুষও যদি তার সঙ্গীকে এ ধরনের কথা বলে, সে ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটতে পারে।

তুমি আমার চাহিদা কথা চিন্তা করো না

কখনোই বিশেষ মুহূর্তে সঙ্গীকে এ ধরনের কথা বলতে যাবেন না। এতে করে সে নিজেও নিজের কাছে ছোট হয়ে যাবে। দাম্পত্য কলহ তৈরি হতে পারে। একপর্যায়ে জীবনটা বিষিয়ে উঠতে পারে। তার চেয়ে আরো যত্নশীল হয়ে সে ব্যাপারে অন্য সময়ে তাকে বোঝাতে পারেন।

সঙ্গীর ব্যর্থতা

বিভিন্ন কারণে বিশেষ মুহূর্তে পুরুষ সঙ্গী যদি আপনার আগেই বিছানা ছেড়ে যায়। সে ক্ষেত্রে

তার অক্ষমতার বিষয়টি জোর দিয়ে বলবেন না। এতে করে মানসিকভাবেও সে ভেঙে পড়তে পারে। নানা কারণে এ ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে। ধীরে ধীরে এসব ঠিক হয়ে যায়। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া যেতে পারে। তবে সঙ্গীকে দোষারোপ করলে সম্পর্কে চিড় ধরার শঙ্কা রয়েছে।