সিজারের পর যেসব লক্ষণ দেখা দিলে ডাক্তারের শরনাপন্ন হতে হবে


অথর
নারী কথন নিউজ ডেক্স   জীবনধারা
প্রকাশিত :৪ মে ২০১৯, ৬:১৫ পূর্বাহ্ণ
সিজারের পর যেসব লক্ষণ দেখা দিলে ডাক্তারের শরনাপন্ন হতে হবে

সিজারিয়ান অপারেশন একটি বড় ধরনের অপারেশন। এই অপারেশন এর পর একজন মায়ের শারীরিক অনেক পরিবর্তন আসে। সিজারের পর নিচের লক্ষনগুলো দেখা দিলে দ্রুত ডাক্তারকে জানাতে হবে।

১. ১০০.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার বেশী জ্বর আসলে।

২. পেটে হঠাৎ ব্যাথা হলে, পেট নমনীয় হয়ে উঠলে বা জ্বলুনি হলে।

৩. কাঁটা স্থানে হঠাৎ ব্যাথা হলে বা পুঁজ দেখা গেলে।

৪. যোনিপথে নির্গত তরলে দুর্গন্ধ হলে।

৫. পায়ের কোন স্থান ফুলে গেলে, লাল হয়ে গেলে বা ব্যাথা হলে।

৬. প্রস্রাবের সময় জ্বালা পোড়া হলে বা প্রস্রাবের সাথে রক্ত গেলে।

৭. স্তনে বা বুকে ব্যাথা বা শ্বাসকষ্ট হলে।

মনে রাখতে হবে প্রসব পরবর্তী ৬-৭ সপ্তাহ পর মাকে অবশ্যই একবার চিকিৎসকের কাছে যাওয়া

উচিত। সম্পূর্ণ চেক-আপের জন্য আমাদের দেশে মায়েদের এই সেবা গ্রহণের হার খুবই কম। এ সময় চিকিৎসক মাকে সম্পূর্ণ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে প্রয়োজনীয় বিভিন্ন চিকিৎসা ও উপদেশ দিয়ে থাকেন। এই চেকআপের সুবিধাসমূহ হচ্ছে- গর্ভধারণের সময় মায়ের শরীরে যে পরিবর্তন হয়েছিল তা পূর্বের স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে এসেছে কিনা চিকিৎসক তা নির্ণয় করে থাকেন। মায়ের কোনো রোগ থাকলে তা নির্ণয় করতে এবং তার চিকিৎসা দিতে পারেন। মনে রাখতে হবে, মা ও শিশুর সুস্থতার জন্য সকল মায়ের প্রয়োজন প্রসব পরবর্তী সেবা, সঠিক চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা। মায়ের সুস্থতার ওপর শিশুর শারীরিক বৃদ্ধি ও বিকাশ নির্ভর করে। তাই প্রসব পরবর্তী পরিচর্যা সম্পর্কে প্রত্যেক মাকে সচেতন

হতে হবে।