১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট আমরা হারিয়ে ছিলাম বাঙালি জাতির অহংকারের প্রতীক।


অথর
পাঠক নিউজ ডেক্স   খোলা মতামত
প্রকাশিত :১৩ আগস্ট ২০১৯, ৬:০৯ অপরাহ্ণ
১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট আমরা হারিয়ে ছিলাম বাঙালি জাতির অহংকারের প্রতীক।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বাঙালি জাতির অহংকার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যায় স্তব্ধ হয়ে গিয়ে ছিল বাংলাদেশ। শোকের ছায়া নেমে এসেছিল সারা বাংলায়। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ভোর রাতে স্তব্ধ হয়ে গিয়ে ছিল বাঙালি জাতির সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন। সোনার বাংলা গড়ার কারিগর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মৃত্যুতে স্তব্ধ হয়ে গিয়ে ছিল উন্নয়নের ধারা। বাঙালি জাতির এই অপূরনীয় ক্ষতি কখনো পূরণ হবার নয়। আমরা সেদিন হারিয়ে ছিলাম বাঙালি জাতির অবিভাবককে। যার কারণে আমরা পেয়েছিলাম আমাদের ন্যায্য অধিকার। স্বাধীন বাংলাদেশ।পেয়েছিলাম স্বাধীন মতামত প্রকাশের অধিকার। পরাধীনতার গ্লানি থেকে মুক্ত করেছিল বাঙালি জাতিকে।

বাঙালি জাতির অন্তরে

লালন করা যে নামটি তিনি হলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর। যার কারণে আমরা পেয়েছি ১৯৭১ সালে স্বাধীন বাংলাদেশ নামক ভূ-খণ্ড । কিন্তু একদল বিপদগামী সেনা সদস্য ১৯৭৫ সালের ১৫ ই আগস্ট ভোর রাতে বাঙালি জাতির অহংকারের প্রতীক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করেছিল নির্মমভাবে। সত্যিই এমন ঘটনা কখনো একটি দেশের কাম্য হতে পারে না।

আগামী ১৫ আগস্ট ২০১৯ খ্রি. জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪ তম মৃত্যু বার্ষিকী । এই দিনটি তাই শ্রদ্ধা ভরা মনে বাঙালি জাতি পালন করে।
মৃত্যু দিবসটি আমাদের মনে করিয়ে দেয়, যে নেতার

জন্ম না হলে আমরা কখনো কল্পনা করতে পারতাম কিনা সত্যিই আমরা বাঙালি।
সে নেতার নাম জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। যার অক্লান্ত ত্যাগ তিতিক্ষার কারণে আমরা স্বাধীন জাতি হিসেবে গর্ববোধ করি।
যিনি ছোট বেলা থেকেই ছিলেন অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার। কোথাও অন্যায় দেখলেই প্রতিবাদের ঝড় তুলতেন। তিনি ছিলেন খুবই সাহসী। দেশের স্বাধীনতা লাভের জন্য প্রতিবাদ করতে যেয়ে বহু মহামূল্যবান সময় টুকু তিনি কারাবন্দী ছিলেন।

তিনি কখনো অন্যায়ের সাথে আপোষ করেননি। দেশের স্বাধীনতা পাবার জন্য কখনো নিজকে নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে নেননি । ফাঁসিকে ভয় করেননি। দেশকে স্বাধীন করার জন্য তিনি বলিষ্ঠ ভুমিকা রাখেন। আমরা আজ বাংলাদেশ নামক

যে ভূখণ্ডটি পেয়েছি এটাও ঐ নেতার সাহসী নেতৃত্বের কারণে।
আজ আমরা বাংলা ভাষায় মনের ভাব প্রকাশ করি তার বড় অবদান জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের।
মাতৃভাষা বাংলা চাই এর প্রতিবাদ করতে যেয়ে ও তিনি কারাবন্দী হয়েছিলেন তাতেও তিনি হাল ছাড়েননি বাঙালি জাতিকে তিনি অধিকার আদায়ে সোচ্চার করেছিলেন। তারই বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণে আমরা আজ বাংলা ভাষায় কথা বলি।
আজ আমরা স্বাধীন দেশের নাগরিক তা ও ঐ নেতার বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারনে। বাঙালী জাতির অহংকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

যার অবদানের কথা কখনো ভুলার নয় সেই নামটি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বাঙালি জাতি হিসেবে বিশ্বের বুকে যার নাম অম্লান হয়ে

থাকবে তিনি হলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

যার ডাকে বাঙালি জাতি মুক্তি যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়ে দেশকে মুক্ত করেছিল পরাধীনতার গ্লানি থেকে।আমরা পেয়েছিলাম স্বাধীন বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ নামক ভূ-খণ্ড যতদিন থাকবে ততদিন পালন করা হবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এই মৃত্যু দিবসটি। তিনি চিরকাল বেচে থাকবেন বাঙালি জাতির অন্তরে।

ধন্যবাদান্তে
মোঃ আবুল হোসেন
সিনিয়র যুগ্ম -মহাসচিব ( কেন্দ্রীয় কমিটি)
বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (নজরুল)